1. [email protected] : 71sangbad 71sangbad : 71sangbad 71sangbad
  2. [email protected] : Admin :
  3. [email protected] : alokito71sangbad alokito71sangbad : alokito71sangbad alokito71sangbad
  4. [email protected] : Daily Alokito : Daily Alokito
  5. [email protected] : Frilix Group : Frilix Group
  6. [email protected] : Gazi Saidur : Gazi Saidur
  7. [email protected] : shihab :
বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১, ০৮:২২ অপরাহ্ন

বিজ্ঞাপন

অপহরনের ৩০ দিন পাড় হলেও ৮ম শ্রেনীর ছাত্রী রুমা আক্তারকে উদ্ধার করতে পারে নি পুলিশ

Reporter Name
  • প্রকাশিত: সোমবার, ২৯ জুন, ২০২০
  • ৮৩ বার পড়া হয়েছে

মু,হেলাল আহম্মেদ(রিপন)-পটুয়াখালী জেলা প্রতিনিধিঃ

অপহৃতার স্বজনরাসহ সদর থানায় দায়ের করা এজাহার সূত্রে জানাগেছে, সদর উপজেলার লাউকাঠি ইউনিয়নের তেলিখালী গ্রামের দিনমজুর কাঞ্চন আকনের মেয়ে গুলবুনিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেনীর ছাত্রী রুমা আক্তারকে স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে এবং বাড়িতে এসে একই এলাকার প্রতিবেশী স্ত্রী হত্যা মামলায় সাজাপ্রাপ্ত মজিদ শরীফের বখাটে, নেশাখোর, ইভটাইজার জলসার ওরফে জুলু শরীফ (৩০) বিবাহের প্রলোভ দেখিয়ে কু-প্রস্তাব দেয়।

এতে রাজি না হওয়ায় বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখায়। ঘটনারদিন ১৮.০৫.২০ইং তারিখ রাত আনুমানিক ৯টার দিকে সুকৌশলে ডেকে নিয়ে তেলিখালী গ্রামের আপ্তের আকনের পরিত্যক্ত বসত ঘরের পূর্বপাশ কুঠার কুড়ের আড়ালে জোর পূর্বক ধর্ষন করে। এ সময় ডাকচিৎকারে আশপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে পৌছলে লম্ফট জুলু শরীফ পালিয়ে যায় এসময়।

এ ঘটনার বিচার পেতে ভিকটিমের স্বজনরা ৯৯৯ নাম্বরে ফোন দিলে থানা পুলিশের সহায়তায় পরদিন ১৯.০৫.২০ইং তারিখ ভিকটিমের মা মিনারা বেগম বাদী হয়ে পটুয়াখালী সদর থানায় জলসার ওরফে জুলু শরীফকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং- ১৯।

এ মামলা করায় ক্ষিপ্ত হয়ে ধর্ষন মামলা থেকে রক্ষার জন্য জলসার ওরফে জুলু শরীফ তার নিকট আত্মীয় জয়নাল শরীফ(৫০), কাওসার শরীফ ওরফে কালু (৩০), শানু শরীফ ও আনছার(৩২)গংদের পরামর্শে, ও নির্দেশনায় সহযোগিতায় ঘটনারদিন ২৬.০৫.২০ইং তারিখ আনুমানিক দুপুর আড়াইটার সময় মা মিনারা বেগম তার মেয়েকে সাথে নিয়ে গোসলের উদ্দেশ্যে নিকটস্থ তেলিখালী খালে যাওয়ার পথে কাওসারের বসত ঘরের পূর্বপাশে পৌছলে কাওসারের ঘরে ওৎ পেতে থাকা লম্ফট জুলু শরীফ ভিকটিমের মুখ চেপে ধরে কাওসার গংদের সহায়তায় মটর সাইকেলে তুলে অজ্ঞাত চালক দ্বারা নিয়ে যায়।

এ সময় অপর একটি মটর সাইকেলে কাওসার ও আনছার পিছনে পিছনে যায়। এ অপহরন ঘটনার পরদিন ২৭.০৫.২০ইং তারিখ ভিকটিমের বাবা কাঞ্চন আলী আকন সদর থানায় উল্লেখিত ব্যক্তিদের আসামী করে একটি অপহরন মামলা দায়ের করেন। এ মামলার ৩০দিন অতিবাহিত হলেও এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ভিকটিম ৮ম শ্রেনীর ছাত্রী রুমাকে উদ্ধার করতে পারেনি থানা পুলিশ।

এ বিষয় সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আক্তার মোর্শেদ এর কাছে জানতে চাইলে, তিনি বলেন আমি মামলার নাম্বার বলতে পারছি না, থানার বাহিরে আছি, কোন মামলা আমি বলতে পারছি না। মেয়েকে না পেয়ে বাবা-মাসহ স্বজনরা দুঃচিন্তায় দিন কাটাচ্ছে। তারা ভিকটিমকে উদ্ধার করার জন্য পুলিশ প্রশাসনসহ সংশ্লিস্ট কর্মকর্তাদের কাছে দাবী করেছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© All rights reserved © 2019 Breaking News
Theme Designed BY Kh Raad ( Frilix Group )