1. [email protected] : 71sangbad 71sangbad : 71sangbad 71sangbad
  2. [email protected] : Admin :
  3. [email protected] : alokito71sangbad alokito71sangbad : alokito71sangbad alokito71sangbad
  4. [email protected] : Daily Alokito : Daily Alokito
  5. [email protected] : Frilix Group : Frilix Group
  6. [email protected] : Gazi Saidur : Gazi Saidur
  7. [email protected] : shihab :
সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ০৩:২১ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞাপন

হাট নিয়ে হতাশ খুলনার খামারিরা-দৈনিক অালোকিত ৭১ সংবাদ

Reporter Name
  • প্রকাশিত: শনিবার, ১১ জুলাই, ২০২০
  • ১০৬ বার পড়া হয়েছে

মোঃ আমিরুল ইসলাম পিয়াল-খুলনা জেলা প্রতিনিধিঃ

করোনা পরিস্থিতিতে সামাজিক দুরত্ব ও স্বাস্থ্য বিধি মেনে পশুর হাটে বেচা কেনা নিয়ে হতাশ খুলনার খামারিরা। তারা এ অবস্থায় পশুর প্রত্যাশিত দাম পাওয়া নিয়েও উদ্বিগ্ন। নানা দুশ্চিন্তা নিয়ে খামারি ও পশু ব্যবসায়ীরা হাটের জন্য অপেক্ষায় না থেকে আগাম গরু বিক্রির চেষ্টা করছেন।

খামারিরা বলছেন, পরিস্থিতি বুঝেই তারা সিদ্ধান্ত নিতে চান। দাম পেলেই কেবল গরু হাটে তুলবেন। লোকসান দিয়ে গরু বিক্রি করবেন না। যে কারণে উপযুক্ত দামে আগে থেকেই বিক্রির চেষ্টা করছেন।

এ অবস্থায় জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বুধবার (৮ জুলাই) দুপুর Qurbani Hat Khulna নামে একটি অনলাইন অ্যাপ উদ্বোধন করা হয়। খোলা হয় qurbanihatkhulna নামের ওয়েবসাইট। অ্যাপটিতে ইতোমধ্যে ৩০ হাজারের বেশি কোরবানির পশু নিবন্ধন করেছেন খামারিরা।

জেলা প্রাণিসম্পদ দফতর সূত্রে জানা গেছে, খুলনায় ৬ হাজার ৮৯০টি গবাদি পশুর খামার রয়েছে। এসব খামারে মোট গবাদি পশু রয়েছে ৪৫ হাজার ১৪৮টি। এর মধ্যে গরু ৪০ হাজার ৯৬৮টি এবং ছাগল ও ভেড়া ৪ হাজার ১৮০টি। গত বছর খুলনায় খামারের সংখ্যা ছিল ৮ হাজার ১টি এবং। কোরবানির জন্য প্রস্তুত ছিল ৫১ হাজার ২৯৪টি পশু। গত বছরের তুলনায় এবার খামার ও গবাদিপশু উভয়ের সংখ্যাই কমেছে।

খুলনা জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা এসএম আউয়াল হকের মতে, করোনার কারণে এবার পশুরহাটে শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে বেচা-কেনা হওয়া উচিৎ। এছাড়া অনলাইনে কোরবানির পশু বিক্রি হচ্ছে। খামারিদের খুব বেশি হতাশ হওয়ার কিছু নেই।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© All rights reserved © 2019 Breaking News
Theme Designed BY Kh Raad ( Frilix Group )